সোমবার | ১৭ জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি | ৩ মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | শীতকাল | রাত ৩:৩২

সোমবার | ১৭ জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি | ৩ মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | শীতকাল | রাত ৩:৩২

  • ফজর
  • যোহর
  • আসর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যদয়
  • ভোর ৫:২৮ পূর্বাহ্ণ
  • দুপুর ১২:১২ অপরাহ্ণ
  • বিকাল ১৫:৫৬ অপরাহ্ণ
  • সন্ধ্যা ১৭:৩৬ অপরাহ্ণ
  • রাত ১৮:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ভোর ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ

তৃতীয় লিঙ্গের লাভলী হত্যার রহস্য ২৪ ঘন্টার মধ্যে উদঘাটন, গ্রেফতার ৪

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on pinterest
Share on telegram

তৃতীয় লিঙ্গের লাভলী হত্যার ২৪ ঘন্টার মধ্যে রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছে প্রশাসন। এ সময় ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়াও হত্যাকাজে ব্যবহৃত অস্ত্রগুলি, চাকুসহ দেশীয় তৈরী অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

গত ৮  জানুয়ারী  সকাল অনুমান ০৮.৩০ ঘটিকার সময় কোতয়ালী থানাধীন ৮নং দেয়াড়া মডেল ইউপিস্থ নারাঙ্গালী সাকিনে যশোর-ছুটিপুরগামী পাকা রাস্তার উপর তৃতীয় লিঙ্গের জনৈক আঃ কাদের লাভলীকে (৩০),  অজ্ঞাতনামা দুস্কৃতকারীরা গতিরোধ করে গুলি করে হত্যার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়। পরে এলোপাতাড়ি শরীরের বিভিন্ন স্থানে চাকু দ্বারা আঘাত করে মটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায় দুস্কৃতকারীরা ।

যশোর জেলার পুলিশ সুপার জনাব প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয়ের দিক-
নির্দেশনায় জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ রুপন কুমার সরকার, পিপিএম এর তত্বাবধানে ডিবি’র এসআই মফিজুল ইসলাম, পিপিএম এর নেতৃত্বে ডিবি ও কোতয়ালী থানা পুলিশের একটি চৌকস টিম কোতয়ালী থানাধীন হাশিমপুর, দোগাছিয়া, ঝাউদিয়া, নারাঙ্গালী, ধর্মতলা এলাকায়  ৯ জানুয়ারী রাত ০১:৩০ ঘটিকা হইতে বেলা ১৫:৩০ ঘটিকা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করে হত্যায় জড়িত ৪ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

তাদের হেফাজত হইতে হত্যাকাজে ব্যবহৃত ১টি বার্মিজ চাকু, ১টি বিদেশী পিস্তল, মোট ৫ রাউন্ড গুলি, ১টি করাত কুড়াল, ৩ রাউন্ড গুলির বুলেট ও ২টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা হত্যার দায় স্বীকার করে জানায় যে, হিজড়া সম্প্রদায়কে পরিচালনা করে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার আকাংখা, পূর্ব বিরোধের জের ও অন্যান্য আর্থিক লাভবানের জন্য উপরোক্ত ধৃত ও পলাতক আসামী জিয়াউর রহমানসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন আসামী পরস্পর যোগসাজসে হিজড়া লাভলীকে হত্যা করার জন্য পূর্ব পরিকল্পনা করে ৮ জানুয়ারী সকাল অনুমান ০৮:৩০ ঘটিকার সময় লাভলীর ইজিবাইককে গতিরোধ করে আসামী শাকিল পারভেজ ও মেহেদী হাসান তাদের ব্যবহৃত পিস্তল দ্বারা গুলি করে । কিন্তু গুলি মিস ফায়ার হলে আসামী শাকিলের হাতে থাকা বার্মিজ চাকু দ্বারা মুখমন্ডলের বিভিন্ন জায়গায় ও গলায় পোচ দিয়ে রক্তাক্ত করে মটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায়।

অস্ত্রগুলি উদ্ধার ও হত্যা সংক্রান্তে কোতয়ালী থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের হয়। এসআই মফিজুল ইসলাম, পিপিএম বাদী হয়ে অস্ত্রগুলি উদ্ধার সংক্রান্তে মামলা দায়ের করেন এবং ভিকটিম লাভলীর ভাই বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। (১) কোতয়ালী মডেল থানার মামলা নং-২৭,  ৯ জানুয়ারী  ধারা-১৮৭৮ সনের অস্ত্র আইনের ১৯এ, (২) কোতয়ালী মডেল থানার মামলা নং-২৮, ৯ জানুয়ারী , ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড।

গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন:
১। মোঃ শাকিল পারভেজ (২১), পিতা- জিয়াউর রহমান, মাতা- হালিমা বেগম, সাং-দোগাছিয়া।  ২। মোঃ মেহেদী হাসান (১৯), পিতা-মোঃ শাহাজুল বিশ্বাস, মাতা-রহিমা বেগম, সাং-ঝাউদিয়া, উভয়থানা-কোতয়ালী, জেলা-যশোর।
৩। নাজমা @ তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) নাজমা (৩৫), পিতা- শেখ মুজিবর, মাতা- খতজা বেগম, স্বামী- জিয়াউর রহমান, সাং-খোলাডাঙ্গা গাবতলা স্কুলের পিছনে রোজিনার বোনের বাসার ভাড়াটিয়া, থানা-কোতয়ালী, জেলা-যশোর স্থায়ী ঠিকানা-সাং-কালিকাপুর, থানা-মতলব, জেল-চাঁদপুর। ৪। সেলিম @ তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) সেলিনা (৪৫), পিতা- মৃত লাল মিয়া, স্বামী-সুজন হোসেন, সাং- খোলাডাঙ্গা গাবতলা স্কুলের পাশে, থানা-কোতয়ালী, জেলা-যশোর।

থেকে আরো পড়ুন

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on pinterest
Share on telegram

Leave a Comment

  • ফজর
  • যোহর
  • আসর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যদয়
  • ভোর ৫:২৮ পূর্বাহ্ণ
  • দুপুর ১২:১২ অপরাহ্ণ
  • বিকাল ১৫:৫৬ অপরাহ্ণ
  • সন্ধ্যা ১৭:৩৬ অপরাহ্ণ
  • রাত ১৮:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ভোর ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ফের আলোচনায় ড. আফিয়া সিদ্দিকী

টেক্সাসের কোলিভিল শহরের সিনাগগে হামলা হয়েছে। প্রায় ১০ ঘণ্টা দমবন্ধ উৎকণ্ঠায় কাটিয়েছিলেন সিনাগগে থাকা চারজন মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রের এই অঙ্গরাজ্যের ওই উপাসনালয় থেকে অবশেষে মুক্ত করা হয়েছে তাদের। নিরাপত্তা বাহিনীর বিশেষ অভিযানের মধ্য দিয়ে অবসান হলো তাদের জিম্মি সংকটের। নিহত হয়েছে বন্দুকধারী। কিন্তু বিভিন্ন মিডিয়ায় ইতোমধ্যে প্রচার হয়ে গেছে জিম্মিকারী ছিলেন

ভারতে সংখ্যালঘু হত্যার ডাক দিয়ে গ্রেপ্তার হলেন ধর্মগুরু

ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যের হরিদ্বারে ‘ধর্মীয় সম্মেলনে’ একটি নির্দিষ্ট সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষকে গণহত্যার ডাক দেওয়ার অভিযোগে