আল্লামা ওবাইদুল্লাহ হামযাহ জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়ার সহকারী পরিচালক হওয়ায় ইশা’র শুভেচ্ছা

আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়া দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম শ্রেষ্ঠ একটি দ্বীনি বিদ্যাপীঠ। সকল সংকির্ণতার উর্ধ্বে উঠে বরাবরই যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিতে কখনো কার্পন্য করেননি জামিয়ার কর্ণধারগণ। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে যে ক’জন মনিষী বিশেষত কুতুবে আলম মুফতি আজিজুল হক রহ. হযরত হাজী ইউনুছ রহ. শাইখুল আরব ওয়াল আজম আল্লামা হারুন ইসলামাবাদী রহ. হযরত মাওলানা নুরুল ইসলাম কদীম সাহেব রহ. ও বর্তমান মুহতামিম মুফাক্কিরে ইসলাম আল্লামা শাহ মুফতি আব্দুল হালিম বোখারী হাফি: তারাই এগ জামিয়ার হাল ধরেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই ছিলেন স্ব-মহিমায় উদ্ভাসিত ও বৈশ্বিক পরিমণ্ডলের প্রতিনিত্বশীল ব্যক্তিত্ব। জামিয়ার পড়ালেখা، নিয়ম-শৃঙ্খলা ও প্রসাশন পরিচালনা পদ্ধতি সবই অন্য সবার জন্য এক অনুকরনীয় ও ঈর্সনীয় আদর্শ।

কওমী অঙ্গনে বিগত কয়েক মাসে লকডাউনের হতাশার সাথে পাল্লা দিয়ে ভর করে নৈরাজ্য, স্বজন প্রীতি, দুবৃত্তায়ন ও সাহেবজাদা সংস্কৃতির কিছু বিচ্ছিন্ন কালো মেঘ। নিষ্ঠাবান শুভার্থীদের মাঝে যা ছড়িয়ে দিয়েছে এক প্রবল হাপিত্যেষ, অহেতুক বিতর্কের বুদবুদ। তৃণমূলে ছেয়ে যাচ্ছে বেয়াদবিপনার ভাইরাস। ফোন কথোপকথন ফাঁসের মত বিকৃত চর্চা এ আঙ্গিনায় এখন ঢুকে পড়েছে।
এ ভয়ঙ্কর থমথমে পরিবেশে হঠাৎ একটি শুভ সংবাদ আমাদের সকলকে পুনরায় আশান্বিত করেছে। জামিয়ার বর্তমান কর্ণধার, আমাদের পরম শ্রদ্ধেয় উস্তাদ, মুফাক্কিরে ইসলাম আল্লামা শাহ মুফতি আব্দুল হালিম বোখারী হাফি: তাঁর পরবর্তী স্থলাভিষিক্ত হিসেবে তার ই স্নেহধন্য যোগ্য শিষ্য মাওলানা ওবায়দুল্লাহ হামযাহকে আল-জামিয়া আল- ইসলামিয়া পটিয়ার নায়েবে মুহতামিম পদে দায়িত্ব দিয়েছেন। হযরতের এ প্রাজ্ঞ সিদ্ধান্ত তাঁকে এক অনন্য উচ্চতায় আসীন করেছন।

আল্লামা ওবাইদুল্লাহ হামযাহ একজন খ্যাতিমান তাফসীরকার, যশদ্ধী ইসলামী অর্থনীতিবিদ। তিনি বহু ভাষার স্বভাবজাত সাহিত্যিক, বিশেষত বাংলা, আরবী, ইংরেজি, উর্দু ও ফার্সী ভাষায় লেখ্য ও কথনে সমান পারদর্শী। যা শুধু কওমী অঙ্গনে নয় বরং পুরো জাতির জন্য গর্বের বিষয়।

তিনি জামিয়া পটিয়া হতে ১৯৯২ সালে বেফাকুল মাদারিস বোর্ড হতে তাকমিল শ্রেণীতে রেকর্ড সংখ্যক মার্ক পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেন ৷

১৯৯৪ সালে থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ৬বছর সৌদি আরবের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীনে শিক্ষক ও অনুবাদক হিসেবে কাজ করেন ৷

২০০১ সাল থেকে অদ্যাবধি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ আল জামিয়া ইসলামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ায় একজন ছাত্র নন্দিত সফল শিক্ষক হিসেবে অত্যান্ত সুনামের সহিত অধ্যাপনা করে আসছেন

তিনি জামিয়ার ত্রৈমাসি আরবি ও ইংরেজি ম্যাগাজিন ‘বালাগুশ শারক’ এর সম্পাদক, মাসিক আত-তাওহিদ এর সহকারি সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন থেকে এগুরু দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

তিনি পৃথিবীর বহুদেশে বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, লেবানন, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, পাকিস্তান, হংকং, থাইল্যান্ড, ওমান, আমিরাত, বাহরাইন সহ মধ্যপ্রাচ্য এবং ইউরুপ- আমেরিকার বহু দেশে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক একাডেমিক সেমিনারে অংশ নেন।

তিনি একজন সফল ইসলামী অর্থনীতিবিদ হিসেবে সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংক ও ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের শরীয়াহ এডভাইজারি বোর্ডের সদস্য হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

তিনি ২০০৫ সালে সাউথ আফ্রিকায় Radio Islam এ পোগ্রাম করেন ৷
২০০৮ সালে সৌদি বাদশার আমন্ত্রণে মক্কা শরিফে অনুষ্ঠিত ধর্মীয় সংলাপ ও কনফারেন্সে অংশ গ্রহণ করেন এবং সেখানে বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি ও কলেজে বিভিন্ন বিষয়ে লেকচার প্রদান করেন।

২০১৭ সালে আমেরিকা যুক্তরাষ্টের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে “ধর্মশিক্ষা বিষয়ক সেমিনারে অংশ গ্রহণ করেন ৷
একই বছরে ইন্দোনেশিয়ার আররানিয়ান ইউনিভার্সিটিতে “আন্তর্জাতিক মানবিক আইন” শীর্ষক সেমিনারে স্পীকার হয়ে প্রবন্ধ পাঠ করেন ৷

২০১৮ সালে মক্কা নগরীতে অনুষ্ঠিত রাবেতাতুল ইসলামিয়ার সেমিনারে ১ম স্থান অর্জন করেন ৷
তিনি একজন সুসাহিত্যিক, তাফসিরকাক লেখক, গবেষক, দাঈ, জনপ্রিয় খতিব ও বহু ভাষাবিদ হিসেবে যেমন সর্বত্র সমাদৃত, তেমনি লিখনীর জগতেও তাঁর সফলতা ঈর্সনীয়।

ইংরেজি ও বাংলা সাহিত্যে তাঁর লিখিত কিছু কাগুজে সন্তান

১. Charity in Islam,
২. Respect for the dead body বহির্বিশ্বে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে ৷

এছাড়াও বিষয় ভিত্তিক তত্ত্ববহুল বয়ানের অনেক সংকলন প্রকাশিত হয়েছে যেগুলো ব্যাপকভাবে পাঠক সমাদৃত হয়েছে।
১. কুরআন ও আধুনিক বিজ্ঞান
২.বিপন্ন নারী
৩. ইসলাম বনাম সন্ত্রাসবাদ
৪. খ্রিস্টবাদের নগ্নছোবলে আক্রান্ত মুসলিম বিশ্ব
৫. সন্ত্রাসবাদ কারণ ও প্রতিকার
৬. মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় মহানবী এর অবদান
৭. আমাদের তারুণ্য: প্রসঙ্গ ফেইসবুক
৮. দারিদ্র একটি বিপদ যাকাত মুক্তির রাজপথ
৯. ইয়াবার ভয়াল থাবা টার্গেট বাংলাদেশ
১০. কুরআনের আলোকে রাসূল সা. এর মর্যাদা ও অধিকার
১১. এসো হে মুমিন জান্নাতের পথে
১২. নারী হিজাবের ছায়ায় ফিরে এসো
১৩. ইলমের মর্যাদা ও উলামায়ে দেওবন্দের অবদান
১৪. ইসলামী সংস্কৃতি বনাম অপসংস্কৃতি
১৫. চারিত্রিক সৌন্দর্য কোন পথে।

আমরা ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন কেন্দ্রীয় কওমি মাদরাসা বিভাগের পক্ষ থেকে আল্লামা ওবাইদুল্লাহ হামযাহ হাফি: কে অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে মোবারকবাদ জানাই এবং বিশেষ করে জামিয়ার সম্মানিত মহাপরিচালক আল্লামা শাহ মুফতি আব্দুল হালিম বোখারী হাফি: কে এমন এক যুগান্তকারী সিদ্ধান্তের জন্য গভীর শ্রদ্ধা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

আমরা আশা করি হযরত হাজী ইউনুস (র.) আল্লামা হারুণ ইসলামাবাদী (র.) ও আল্লামা বোখারি হাফিজাহুল্লাহ’র মতো বৈশ্বিক পরিমন্ডলে জামিয়ার সফল প্রতিনিধিত্ব করতে তিনি সক্ষম হবেন। জামিয়াকে রূহানিয়াত ও ইলমিয়াতের উৎকর্ষতায় একটি ওয়ার্ল্ড ক্লাস ইনষ্টিটিউশনে রূপান্তরের ভিশন হাতে নিবেন।
জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়া বাংলাদেশের একমাত্র কওমী মাদরাসা হিসেবে সৌদি আরবের মক্কায় অবস্থিত উম্মুল ক্বুরা ইউনিভার্সিটি’র সাথে কৃত চুক্তির সঠিক ও কার্যকরী পদক্ষেপ নিবেন তিনি । এছাড়া মধ্যপ্রাচ্য সহ বিশ্বের স্বনামধ্য ইউনিভার্সিটি গুলোর সাথে মু’আদালা ( চুক্তি) করে জামিয়ার গ্রাজুয়েটদের উচ্চ শিক্ষার সুযোগ তৈরিতে কার্যকরি পদক্ষেপ নিবেন।
পৃথিবী জুড়ে ছড়িয়ে থাকা জামিয়ার সন্তানদের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে এ স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে ইনশাআল্লাহ।
আল্লাহ পাক প্রিয় জামিয়াকে আকাবিরদের পদাঙ্ক অনুসরনের মাধ্যমে আরো উত্তরোত্তর সাফল্য দান করুক।

লেখক
নুরুল বশর আজিজী
কেন্দ্রীয় কওমী মাদরাসা সম্পাদক
ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন

আরো পড়ুন পোস্ট করেছেন

Comments

লোড হচ্ছে...
শেয়ার হয়েছে