এখানে লাশ পড়লে দায় ডিসি এসপি ও নির্বাচন অফিসারের: কাদের মির্জা

প্রশাসনের বিরুদ্ধে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছেন বসুরহাট পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা। তিনি সোমবার বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে রুপালি চত্বরে ব্যবসায়ীদের আয়োজনে এক নির্বাচনী সভায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেছেন, একরাম চৌধুরী (নোয়াখালীর এমপি), নিজাম হাজারী (ফেনীর এমপি), নোয়াখালীর ডিসি, এসপি, জেলা নির্বাচন অফিসার মিলে নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। কবিরহাট ও ফেনীতে এক বাড়িতে বসে তারা নির্বাচন বানচাল করার যড়যন্ত্র করছে। 

আবদুল কাদের মির্জা বলেন, আমি নির্বাচনকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে নিয়েছি। 

এ সময় নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসেনকেও সতর্ক করে নৌকার মেয়র প্রার্থী বলেন, এখানে ভোটে কোনো গোলযোগ হলে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে উনারও দায় এড়ানোর কোনো সুযোগ নেই। মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরেরও দায় এড়ানোর সুযোগ নেই।

কাদের মির্জা বলেন, নির্বাচন কেন্দ্র করে যদি এখানে কোনো লাশ পড়ে, কোনো মায়ের বুক খালি হয়, কারও বাড়িঘর, খড়ের গাদায় আগুন দেওয়া হয়, ভোটডাকাতি বা নির্বাচনী প্রহসন হয়- তা হলে এসব কিছুর দায়দায়িত্ব নোয়াখালীর ডিসি-এসপি ও নির্বাচন অফিসারকে নিতে হবে। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন, ব্যবসায়ী গোলাম শরীফ চৌধুরী পিপল, আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান প্রমুখ। 

আরো পড়ুন পোস্ট করেছেন

Comments

লোড হচ্ছে...
শেয়ার হয়েছে