‘বিশ্ববিদ্যালয় ও হল খোলার পর শিক্ষার্থীরা করোনায় আক্রান্ত হলে এর দায় কেউ নেবে না’

চলমান পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় ও আবাসিক হল খোলার সিদ্ধান্ত ভেবে-চিন্তে নিতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় ও হল খোলার পর যদি কোনো শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হয় তাহলে এর দায় কেউ নেবে না। সবাই তখন সমালোচনায় ব্যস্ত হয়ে পড়বে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় ও হল খোলা প্রসঙ্গে এক সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে কখনোই করোনার প্রকোপ কমানো সম্ভব নয়। তবে ছাত্র-ছাত্রীরা হচ্ছে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। আর আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে কোনোভাবেই ঝুঁকির মধ্যে ফেলা উচিত হবে না। সে হিসেবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত যথার্থই।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলা সম্ভব হচ্ছে না, সেহেতু অনলাইন শিক্ষার উপর জোর দেয়া দরকার। বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলো অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস-পরীক্ষা নিচ্ছে। তাদের কোনো সমস্যা হচ্ছে না। আমাদের উন্নত দেশগুলোকে ফলো করা উচিত।

হল খোলার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল যদি মনে করে হল খোলা যাবে তাহলে তারা সেটি করতে পারে। তবে তারাও আসলে দ্বিধা-দণ্ডে ভুগছে। একটি সিদ্ধান্ত নিলে তার হিতে বিপরীত হলে তার দায়ভার কেউ নেবে না। সবাই তখন সমালোচনা শুরু করবে। সেজন্য যে কোনো সিদ্ধান্তই ভেবে চিন্তে নিতে হবে।

আরো পড়ুন পোস্ট করেছেন

Comments

লোড হচ্ছে...
শেয়ার হয়েছে