যুদ্ধ বিরতির ঘোষণাকে পর্যবেক্ষণে রেখে ইসলামী আন্দোলনের গণমিছিল স্থগিত

ফিলিস্তিনে ইসরাইলি বর্বরতা, চলতি হামলা এবং যুদ্ধবিরতি পরিস্থিতি পর্যালোচনা নিয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলদেশ এর এক জরুরী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ এর সভাপতিত্বে বৈঠকে সার্বিক বিষয় নিয়ে বিশ্লেষণ করা হয়। বিশ্লেষণে ফিলিস্তিনিদের জরুরী মানবিক অবস্থা বিবেচনা করে যুদ্ধ বিরতিকে স্বাগত জানিয়ে পূর্ব ঘোষিত আগামী ২৪ মে ২০২১ ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য গণমিছিল স্থগিত করা হয়। তবে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ও আল-আকসা উদ্ধারে প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়। সেজন্য দীর্ঘমেয়াদী নানা নীতি-কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হয় এবং ধারাবাহিক প্রচেষ্ঠার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

বৈঠকের সভাপতি বলেন, “বিশ্ব সংস্থাসমূহের বারংবার ব্যর্থতা সত্ত্বেও চলতি যুদ্ধ বিরতিতে তাদের ওপরে পুন:বিশ্বাস করা হলো। এবারও যদি যুদ্ধবিরতির কোনো লঙ্ঘন করা হয় এবং ইসরাইলি বর্বরতার পুনরাবৃত্তি হয়, তাহলে মুসলিম জনতা গণমুক্তি বাহিনী গঠন করে বাইতুল আকসা উদ্ধারে মাঠে নামবে ইনশাআল্লাহ।”

ইসলামী আন্দোলনের জরুরী বৈঠকে বাংলাদেশের কারাগারে আটক থাকা নিরিহ আলেম-উলামা ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবী করা হয় এবং কারা হেফাজতে নারায়ণগঞ্জের মাওলানা ইকবালের মুত্যুর তীব্র নিন্দা করা হয়। নেতৃবৃন্দ বলেন, কারা হেফাজতে এভাবে মানুষ মারা যাওয়া আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি মানুষকে বিক্ষুদ্ধ করে তোলে; যা কারো জন্যই শুভকর নয়।

উক্ত জরুরি বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারী মহাসচিব মাওলানা অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম আতিকুর রহমানসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

আরো পড়ুন পোস্ট করেছেন

Comments

লোড হচ্ছে...
শেয়ার হয়েছে